লাশকাটা ঘর

বীভৎস রাতে লাশকাটা ঘরে আমার লাশটার পাশে আমি দাঁড়িয়ে থেকে কি জবাব দেব? আমার ভুলের মাশুল কেন আমার লাশটা ভুগবে? ছিন্ন ছিন্ন করে কেটে ফেলা দেহটা কেন আমার ভুলের বোঝাটা নিলো?সে কি বলবে না, এতবছর যাকে ঠিক রাখতে আমি আমাকে বিলিয়ে দিলাম সে-ই আজ আমায় কুটি কুটি করাতে কাটাঘরে ফেলে Read more…

বিভ্রমে-কল্পনা

কুয়াশা ঢাকা শহর জুড়ে আজ বিচ্ছেদের খেলাকেউ হারানোর বেদনায়কেউ হারিয়ে যাওয়ার বেদনায়সবখানে শুধু নিস্তব্ধতা আর বিচ্ছেদে ভরা। তবু সেই নিস্তব্ধতায় খুঁজে পেয়েছি এক কোমল হাতছুঁয়া যায়? বিশ্বাস করা যায়?হয়ত অন্ধভাবে না,তবুও করা যায়। কোমল হাত টুকু ধরে হেটে চলেছি কিন্তুহঠাৎ ফিরে এলাম বাস্তবতায়,পাশে কিছুই নেইনেই কোনো হাত!শুধু অন্ধকার আর অন্ধকারদূর Read more…

মুক্তি

আমার লাশটা পাওয়ার পর টাঙিয়ে দিও গোল চত্বরেআর বলে দিওসালা বেঈমান, সহ্য করতে পারে না! বলে দিও তোমাদের অভিযোগ আর ভাবনাশত কষ্ট সহ্য করা দেহটার পাশেআমি নাহয় চুপ থেকেই শুনে যাবো! ঝুলন্ত দেহটার পাশে এসে ছুড়ে দিও থুথু আর মাটিআর বলে দিও,সালা কাপুরুষপারলে কয়েকটা মুখরোচক গালিও দিয়ে দিওশুধু দেহ অন্তরের Read more…

শেষ বিকেল

শেষ বিকেলের এক পশলা রোদের মাঝেঠাঁই দাঁড়িয়ে থাকা আমিনির্বিকার ভাবে তাকিয়ে আছিপিছঢালা পথের দিকে মুখ করে তাকিয়েতুমি আসবে বলে। কখনো না দেখা তোমায় চিনব কেমন করেতা ভাবতে ভাবতেই চোখ আটকে গেলো পথ সম্মুখে! সোনালি পাড়ের সাদা শাড়ি পড়াকানে কাঁচের ঝুমকো,নাকে নথ,হাতে চুড়ি,পায়ে নুপুরকোকড়াকেশি এক রমণী এগিয়ে আসছে পথ ধরে! মনে Read more…

উপাধি আমার ব্যর্থ প্রেমিক

কোনো এক জোৎস্না রাতে তুমি বলেছিলে আমায়চলো না হারিয়ে যায় দূরে কোথাও গিয়েএকলা ভাবে প্রকৃতিটাকে উপভোগ করতে। বলেছিলে পিঠে পিঠ রেখে তাকিয়ে থাকব আকাশেভেবে বলব তারাভরা আকাশটাকে পাওয়ার নিমিত্তেচলো দৃষ্টিটা ভাসিয়ে দেই মহাকাশ থেকে বহু দুরত্বে! বলেছিলে ফুলের পাপড়ির ন্যায় ঠোট নাড়িয়েজীবনসঙ্গী হতে রাজি আছো কি?সহসা তোমার হাত ধরে বলেছিলাম Read more…

অদৃশ্য অস্তিত্ব

কখনো কী ভেবেছ একলা আমায় নিয়েচাঁদনী রাতে জানালার পাশে পাশে বসেকিংবা ব্যস্ততার মাঝে ঠুনকো সময়ে! কখনো কি ভেবেছ এই অজ মানুষটাকে নিয়ে? ভাবো নি,সময় হয়ে উঠেনি?তবুও কি রেখেছিলে আমায় মনে?হয়তো তোমার অস্তিত্বে ছিলামই না আমি। থাকব না একদিন,বলব না কবিতা,লিখব না মনের কথাকরবেটা কি তখন?মনে পড়বে কি আমায়! আজ হাজার Read more…

দেবী-ধর্ষণ

কী নামটা শুনে ভ্যাবাচ্যাকা খেলেতো! জানতাম, তুমিতো বাংলার কাঙালী, তোমার ভেতরতো এইটা করার সামর্থ্য আছে। আছে না? বোধহয় বাঙালীর নেই! তবে তোমার মতো কিছু কাঙালী-কাপুরুষ এর আছে! যারা দিনে দুপুরে দেবীদের চোখ দিয়ে গিলে খায়, রাতে কিংবা নির্জন জায়গায় দেবীদের ধরে স্বার্থ হাসিল কর! কী লাভ তোমার? সাময়িক সুখের জন্য Read more…

অভিনয়

নিস্তব্ধ বৃষ্টির রাত ঝরে পড়ছে তার আপন দোলায়! কদম এর গন্ধে চারপাশ ভরপুর কনকনে ঠান্ডা বাতাস মিশে যাচ্ছে শরীরের সাথে, পরশে পরশে দোল খাচ্ছে দু’শ ছিয়াশি গ্রামের হৃৎপিন্ডটা একাকিত্বতায় সে নিজেকে হারিয়ে ফেলছে রঙটুকু ধুয়ে গেছে ল্যাক্রিমাল গ্ল্যান্ড নিঃসৃত পানি দ্বারা তবে বজায় রেখেছে বহির্দুনিয়ায় সুখের অভিনয় করা! তার দু’শ Read more…

শিরোনাম

মেঘের আড়ালে অমাবস্যার চাঁদ ব্যস্ত শহর,ফাঁকা রাস্তা ঘুটঘুটে অন্ধকার! ডাস্টবিনের পাশে দুই মানব-মানবীর ছায়া। আবর্জনার আড়াল থেকে বেরিয়ে এল এক কুকুর! হঠাৎ চিৎকার,ঘেউ-ঘেউ! অন্ধকার কেটে আলো ফুটে আসল কিন্তু শিরোনাম হয়ে গেল ডাস্টবিন এ নবজাতক এর লাশ! শিরোনাম Mohammad Sakib